এইচএসসির ফল তৈরিতে হচ্ছে যে নীতিমালা

এইচএসসির ফল তৈরিতে হচ্ছে যে নীতিমালা

এইচএসসি-সমমানের পরীক্ষার ফল তৈরিতে নীতিমালা করা হচ্ছে। সে নীতিমালার আলোকে আগামী ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহের মধ্যে ফল প্রকাশ করার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

 

বুধবার বিকেলে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন গ্রেড মূল্যায়ন কমিটির সদস্য সচিব ও আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক।

এছাড়া ফল তৈরি করতে জিপিএ গ্রেড নির্ণয়ের নীতিমালার খসড়া তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। শিগগিরই সে খসড়া প্রতিবেদন আকারে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জমা দেবে গ্রেড মূল্যায়নে গঠিত টেকনিক্যাল কমিটি।

অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, জেএসসি-জেডিসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে এইচএসসি-সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে। আগের দুই পরীক্ষার ফলের ওপর শিক্ষার্থীর গ্রেড পয়েন্ট নির্ধারণ করা হবে।

 

তিনি আরো বলেন, অটো পাসে পরীক্ষার্থীদের গ্রেড নির্ণয় করতে একটি আট সদস্যের টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে আমরা চারটি সভা করে একাধিক প্রস্তাব তৈরি করেছি।

তার থেকে চূড়ান্ত একটি প্রস্তাব নির্বাচন করে নভেম্বরের শেষ দিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। তার ভিত্তিতে নীতিমালা তৈরি করে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষার ফলাফল তৈরি করা হবে।

আগামী ২৫ ডিসেম্বরের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ করা হবে বলে জানান তিনি।শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে আট সদস্যের এ কমিটিতে ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে সদস্যসচিব করা হয়েছে।

 

এছাড়া কমিটিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের প্রতিনিধি এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে করোনাভাইসের প্রকোপ বাড়তে শুরু করলে গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়। কওমি মাদ্রাসা বাদে অন্যসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করা ছিল।

মহামারীর মধ্যে এবার পঞ্চম ও অষ্টমের সমাপনী পরীক্ষা এবং মাধ্যমিক স্তরের বার্ষিক পরীক্ষা নেবে না সরকার।

Leave a Reply